hamburgerIcon
login
STORE

VIEW PRODUCTS

ADDED TO CART SUCCESSFULLY GO TO CART
  • Home arrow
  • শীতকালে আপনার শিশুকে অনেকগুলি জামা পরানোর বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ arrow

In this Article

    শীতকালে আপনার শিশুকে অনেকগুলি জামা পরানোর বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ

    Baby Care

    শীতকালে আপনার শিশুকে অনেকগুলি জামা পরানোর বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ

    3 November 2023 আপডেট করা হয়েছে

    শিশুদের জীবনকালে প্রথম দিকে তারা বিভিন্ন সংক্রমণ ও ভাইরাসের প্রতি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে থাকে। এর কারণ হল ওই সকল সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্যে শিশুদের পর্যাপ্ত রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হয় না। শীতকাল খুবই সুন্দর। তবে এই সময়টি ভাইরাসের সংক্রমণের জন্যে খুবই উপযোগী, যেমন ঠাণ্ডা লাগা, ইনফ্লুয়েঞ্জা, কাশি ও নিউমোনিয়া। তাই আবহাওয়া অনুযায়ী আপনার শিশুকে জামাকাপড় পরানো ও বিশেষ করে শীতকালে তাদের গরম রাখা জরুরি। শীতকালে শিশুদের শরীরের তাপমাত্রা বজায় রাখার জন্যে সাহায্যের প্রয়োজন হয় তাই তাদের একসাথে অনেকগুলি জামা পরানো আবশ্যক।

    শীতকালে আমার শিশু কী জামা পরবে?

    তাপমাত্রা কমে গেলে আপনার শিশুকে অনেকগুলি জামা পরানো জরুরি হয়ে যায় যাতে তারা উষ্ণ ও আরাম অনুভব করতে পারে। আপনার শিশুকে সাধারণত যে জামা পরিয়ে থাকে তার থেকে একটি অতিরিক্ত বেশি জামা পরানো সুনিশ্চিত করুন; এটি শীতকালের প্রথম নিয়ম। যদি আপনার ঠাণ্ডা লাগে তবে আপনার শিশুরও ঠাণ্ডা লাগতে পারে। বিভিন্ন জায়গায় শিশুদের জামা-কাপড় পরানোর প্রকারগুলি হল:

    গাড়িতে

    ভারী জামা-কাপড় যেমন প্লাফি স্নো স্যুটগুলি গাড়িতে পরানোর জন্যে সুরক্ষিত নয়। যেহেতু এগুলি খুব বেশি টাইট হয় না ও জোর পাওয়া যায় না, কিছু বিশেষজ্ঞরা ভারী জামাকাপড় ও গারির সীটের সাথে লাগানো স্লিপিং ব্যাগ ব্যবহার করতে বারণ করেন কারণ এগুলি কোনো দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে চেপে যেতে পারে যা শিশুদের মধ্যে আঘাতের সম্ভাবনা বাড়ায়। এর বদলে আপনার শিশুকে অনেকগুলি জামা পরান এবং তাকে গাড়ির সীটে আটকে দেওয়ার পরে একটি কম্বল দিয়ে জড়িয়ে দিন। আপনি গাড়ির সীটের একটি কভারও কিনতে পারেন যদি এটি এর প্রস্তুতকারকের দ্বারা অনুমোদিত হয়। শিশু ও গাড়ির হারনেস স্ট্র্যাপের মধ্যে কোনো কভার থাকা উচিত নয়। প্রচণ্ড ঠাণ্ডার সময়ে আপনার শিশুকে একটি ওয়ান পিস ফুটেড ফ্লিস কাপড়ের নিচে আরেকটি লম্বা হাতা ওয়ান পিস পরান। আবহাওার ওপর নির্ভর করে আপনি একটি সুতির সোয়েটারও পরাতে পারেন। শিশুকে গাড়িতে তার সীটে বসানোর সময়ে অনেকগুলি বা মোটা কম্বল ব্যবহার করুন। শিশুকে গাড়ির সীটের সাথে লাগিয়ে দেওয়ার পর আপনি কম্বলের বদলে একটু বড় শিশুর একটি কোট ব্যবহার করে সামনে থেকে তাতে শিশুর হাতগুলি ঢুকিয়ে দিতে পারেন।

    বাড়িতে

    বাড়ির ভিতরে থাকাকালীন আপনার শিশুকে একগাদা জামাকাপড় পরাবেন না। সাধারণ নিয়ম হল আরেকটি অতিরিক্ত কাপড় পরানো, যা বাড়ির ভিতরেও কার্যকর, এবং আদর্শ তাপমাত্রা থাকবে 66 ডিগ্রি থেকে 72 ডিগ্রি ফারেনহাইট। শিশুর তাপমাত্রা খুব বেশি বা কম কি না তা দেখার একটি আদর্শ উপায় হল তার পেটে বা পিঠে হাত রেখে দেখা যা গরম হবে ও তাতে ঘাম থাকবে না। অতিরিক্ত গরম হয়ে যাওয়ার লক্ষণগুলি সম্পর্কে সচেতন থাকুন যেমন ঘাম হওয়া, চুল ভিজে যাওয়া, গাল লাল হয়ে যাওয়া ও ঘন-ঘন শ্বাস ফেলা। যদি এর মধ্যে একটিও দেখা যায় তবে একটি কাপড় খুলে নিন।

    বাইরে

    আপনার শিশুর জন্যে শীতকালেও খোলা বাতাস প্রয়োজনীয়। যদি শিশু স্বাস্থ্যবান ও ফুল টার্ম হয়ে থাকে তবে তাকে 15-20 মিনিট বাইরে ঘুরতে নিয়ে যাওয়া যেতে পারে। আপনার শিশুকে কাপড়ের স্তর দিয়ে ঢাকুন কারণ প্রাপ্তবয়স্কদের তুলনায় শিশুদের শরীরে তাপমাত্রা খুব তাড়াতাড়ি কমে যায়। তাই যদি আপনি বাইরে বেরোন তবে আপনার শিশুকে একটি ফুল-হাতা জামা, একটি সোয়েটার ও একটি কোট পরিয়ে নিয়ে যান। এর সাথে মিটেন, একটি স্নাগ-ফিটিং টুপি ও গরম জুতো পরান।

    যদি আপনি একটি ক্যারিয়ার নিয়ে বেরোন তবে শিশুর এয়ারওয়েটি পরিষ্কার রাখুন যাতে তাদের মুখ খোলা থাকে এবং বাবা-মায়েরা তাদের দেখতে পায়। যদি আপনি একটি স্ট্রলার নিয়ে বেরোন তবে উইন্ডবার্নের হাত থেকে শিশুর নরম ত্বককে রক্ষা করতে এর সাথে একটি স্লিপিং ব্যাগ ও একটি উইন্ডস্ক্রিন যোগ করতে পারেন। যদি আপনার শিশুর চোখে জল চলে আসে বা সেগুলি ঘোলা হয়ে গিয়ে তারা কাঁদতে শুরু করে তবে জানবেন শিশুর ঠাণ্ডা লেগে গেছে। এছাড়া হাইপোথার্মিয়ার লক্ষণগুলি খেয়াল রাখুন যেমন ঠোঁট নীল হয়ে যাওয়া, কাঁপুনি বা নাক ও কান ফ্যাকাশে হয়ে যাওয়া।

    আপনার শিশুর ঠাণ্ডা লাগছে কিনা তা বুঝবেন কীকরে?

    আপনার শিশুর আপনার সাথে কথা বলতে হয়তো কিছু সময় লাগতে পারে। তবে তার ঠাণ্ডা লাগছে কিনা তা জানার জন্যে কিছু কাজ আপনি করতে পারেন, যেমন:

    • আপনার হাত শিশুর পেটের উপর রেখে দেখুন এটি খুব বেশি ঠাণ্ডা লাগছে কি না। যদি এটি ঠাণ্ডা হয় তবে আপনার শিশুর ঠাণ্ডা লাগছে এবং আপনাকে তাকে ঢেকে রাখার চেষ্টা করতে হবে।
    • শিশুর হাত ও পায়ের তাপমাত্রা মাপা আরেকটি উপায়। যদি দেখেন এগুলি অত্যন্ত ঠাণ্ডা হয়ে গেছে তবে তা আরেকটি লক্ষণ। শিশুকে আরাম দিতে তাকে গরম কাপড়ে ঢেকে রাখার চেষ্টা করুন।
    • শিশুর ঠাণ্ডা লাগছে কিনা তা বোঝার আরেকটি উপায় হল তার হাত পা দেখা। যদি এগুলি হালকা নীলাভ বা ফ্যাকাশে লাগে তবে আপনার তৎক্ষণাৎ বোঝা উচিত যে শিশুর খুব ঠাণ্ডা লাগছে।
    • যেহেতু শিশুরা কেবলমাত্র কান্নার মাধ্যমে তাদের কথা বোঝাতে পারে তাই যদি দেখেন তারা ছটফট করছে বা কাঁদছে তবে এটি আরেকটি লক্ষণ যে তাদের ঠাণ্ডা লাগছে। যদি তাদের চোখে জল থাকে বা অশান্তি বা অস্বস্তি থাকে তবে একে স্বাভাবিক বলে নজরান্দাজ করবেন না; গরম কাপড়ে শিশুকে ঢেকে দিয়ে ওকে আরামে রাখুন।
    • নাক দিয়ে জল পরা ঠাণ্ডা লাগার আরেকটি পরিষ্কার লক্ষণ। যেহেতু শিশুরা সংক্রমণের প্রতি অনেক বেশি ঝুঁকিপূর্ণ তাই তাদের গরম ও আরামে রাখুন।

    শীতকালের জন্যে আপনার শিশুর আলমারি তৈরি করবেন কীভাবে?

    শীতকালের জন্যে আপনার শিশুর আলমারি তৈরি রাখতে সুনিশ্চিত করুন গরম ও ঠাণ্ডা দুইয়ের উপযোগী জামাকাপড়ই আপনার কাছে আছে। আপনার শিশুর জন্যে সঠিক শীতের জামাকাপড় বেছে নেওয়ার সময় যে বিষয়গুলি মাথায় রাখবেন:

    • আরাম (Comfort): শিশুর জন্যে সঠিক প্রকারের জামা কেনা সুনিশ্চিত করুন, যেগুলি খুব টাইট, চেপে থাকা বা ভারী হবে না। ওদের জামাগুলি পরতে আর খুলতে সহজ হবে যাতে তারা খোলা ভাবে নড়াচড়া যেমন দৌড়াদৌড়ি ও খেলাধুলা করতে পারে।
    • আকার (Size): আপনি একটি জ্যাকেট, হুডি, সোয়েটার বা কার্ডিগান যাই কিনুন সেই সামগ্রীতে দেওয়া সাইজ দেখে নিন যাতে বয়সের বিভাগ দেওয়া থাকে। এটি ভালো করে দেখে নিন এবং ভাবুন আপনার শিশুর গায়ে এটি হবে কি না। সামান্য একটু বড় কাপড় কিনুন কারণ বাচ্চারা খুব তাড়াতাড়ি বাড়ে। যদি আপনার শিশু বয়সের তুলনায় অন্য শিশুদের থেকে বড় হয় তবে সবসময়ে এক সাইজ বড় জামা কিনুন।
    • বেবি ক্যাপ (Baby caps): যদি আপনি প্রতিরোধক ব্যবস্থাগুলি না নেন তবে শীতকালের ঠাণ্ডা হাওয়া আপনার শিশুকে অসুস্থ করে দিতে পারে। যদি শিশুর খোলা মাথার উপর দিয়ে হাওয়া যায় তবে শিশুরা কেঁদে উঠতে পারে এবং পরে গিয়ে জ্বর আসতে পারে। এর থেকে রক্ষা পেতে টুপি বা হুড পরে থাকা সুনিশ্চিত করুন। এটি শিশুদের উলের টুপি বা জ্যাকেটের হুড হতে পারে। অনলাইনে বিভিন্ন রঙ ও ডিজাইনের টুপি পাওয়া যায় বা আপনি নিজেও এটি বুনে নিতে পারেন। এই টুপিগুলি শিশুদের মাথা ও কান সম্পূর্ণ ঢেকে রাখে।
    • স্ট্রলারগুলি পরিবর্তন করুন (Modify your strollers): শিশুদের খোলা হাওয়ার প্রয়োজন হয় এবং শীতকালে তারা সারাদিন ঘরের ভিতর পড়ে থাকতে পারে না। তাই আপনি স্ট্রলারে একটি স্বচ্ছ শিট চেনের মাধ্যমে জুড়ে দিতে পারেন। এভাবে আপনি স্ট্রলে করে শিশুকে ঘুরতে নিয়ে যেতে পারে এবং এটি ঠাণ্ডা আবহাওয়া থেকে শিশুকে যথার্থ সুরক্ষা দেবে।
    • গাড়ির সীট (Car seat): শীতকালে আপনার শিশুকে তৈরি করা কঠিন হতে পারে, তবে আরো একটি অসুবিধা হল অতগুলি জামা পরা অবস্থায় শিশুকে গাড়ির সীটে আটকানো। ঠাণ্ডা বাতাসের সংস্পর্শে না এনে শিশুকে গাড়ির সীটে আটকানোর সবচেয়ে সহজ উপায় হল অতিরিক্ত জ্যাকেট বা কম্বলটি সরিয়ে নেওয়া। আপনার শিশু আরাম পেলে তবে গাড়ির সীটে ওকে আটকে দিন, এর পর ঢাকা দেওয়ার জন্যে আপনি কম্বল ব্যবহার করতে পারেন।
    • মোজা ও মিটেন (Sock and mittens): শিশুর হাত ও পা পরিবেশে সবসময়েই খোলা থাকে যা শীতকালে আপনার শিশুর বারবার অসুস্থ হয়ে পড়ার অন্যতম কারণ। বাড়ির ভিতরে বা বাইরে মোজা ও হাতের গ্লাভস বা মিটেন দিয়ে তাদের ঢেকে রাখা সুনিশ্চিত করুন। এর ফলে হাত ও পা গরম ও ঢাকা থাকবে। জুতোর ভিতরে মোজা পরানো শিশুদের লেয়ারিং করানোর ভালো উপায়। এছাড়া শীতকালে জরুরি পোশাক হওয়ার পাশাপাশি হাতের মিটেনগুলি শিশুর হাত পরিষ্কার ও ব্যাকটেরিয়ার হাত থেকে সুরক্ষিত রাখে।

    শীতকালে আপনার শিশুকে গরম রাখার উপায়

    শীতকালে আপনার শিশুকে গরম ও আরামে রাখার কিছু বিশেষ উপায় নিচে দেওয়া হল:

    • শিশুকে একের বেশি জামা পরান

    শীতকালে শিশুকে গরম ও আরামে রাখার সবথেকে সহজ ও প্রভাবশালী উপায় হল এটি। একের বেশি স্তরে জামাকাপড় পরানো হলে তা তাদের প্রয়োজন মেটাতে সাহায্য করে। উদাহরণস্বরূপ, আপনি সবচেয়ে নিচে একটি লেগিংস ও বডি স্যুট পরাতে পারেন। তারপর আপনি প্যান্ট ও ফুল হাতা শার্টের আরেকটি স্তর দিতে পারেন। তার ওপরে হাত ও পা গরম রাখার জন্যে জ্যাকেট বা সোয়েটার, ক্যাপ, মিটেন, ও ওয়ার্ম বুটি দিতে পারেন।

    • সঠিক কাপড় বেছে নেওয়া

    শিশুকে গরম রাখার উদ্দেশ্য পূরণ করার জন্যে সঠিক কাপড় বেছে নেওয়া প্রয়োজন। শ্বাস চলাচল করা যায় এমন কাপড় যেমন সুতি বা মসলিন বেছে নিন। থার্মাল কাপড়গুলি শীতকালের জন্যে খুবই ভালো। শীতকালের জন্যে উল ও পলিয়েস্টার কাপড়গুলিও খুব ভালো। সুতির জামা এড়িয়ে চলুন কারণ এগুলি ঠাণ্ডার বিরুদ্ধে ভালো কাজ করে না। আবার খেয়াল রাখবেন যাতে শীতকালে শিশুকে নিয়ে বাইরে বেরোলে এই কাপড়গুলি বাতাসের আর্দ্রতা শুষে না নেয়।

    • বাইরের অ্যাক্সেসরি

    যদি আপনি আপনার ছোট্ট শিশুকে বাইরে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করে থাকেন তবে কিছু অতিরিক্ত অ্যাক্সেসরি ব্যবহার করুন যেমন মাঙ্কি ক্যাপ ও মিটেন। এগুলি শিশুকে গরম ও আরামদায়ক অবস্থায় রাখা সুনিশ্চিত করবে। নরম উপকরণ দিয়ে তৈরি একটি টুপি নিন যা ঠাণ্ডা প্রতিরোধ করে।

    • কম্বল সাথে রাখুন

    যদি হঠাৎ তাপমাত্রা কমে যায় তার জন্যে সবসময়ে একটি কম্বল সাথে রাখা ভালো যা শিশুকে যথেষ্ট গরম দেবে। যদি আপনি খুব বেশি ঠাণ্ডার জায়গায় থাকেন তবে একটি কম্বল রাখা আবশ্যক।

    • স্নো স্যুট

    ঠাণ্ডা আবহাওয়ার জন্যে স্নো স্যুটগুলি খুবই ভালো। এগুলি ঠাণ্ডার বিরুদ্ধে অতিরিক্ত সুরক্ষা দেয়, শিশুকে খুবই মিষ্টি দেখতে লাগে এবং শিশুর মাথা থেকে পা পর্যন্ত ঢাকার জন্যে এগুলি ডিজাইন করা হয়

    • জিপ-আপ বেছে নিন

    জিপ-আপগুলি ভালো কারণ এগুলি পরানো ও খোলা সহজ। মনে করুন আপনার শিশুর ডায়পার তৎক্ষণাৎ বদল করার প্রয়োজন, বা হঠাৎ তাপমাত্রা গরম হয়ে শুরু করছে এবং আপনি শিশুর ওপর থেকে কিছু জামা খুলে দিতে চান। জিপ-আপগুলিতে জামাকাপড় বদলানো খুবই সুবিধাজনক।

    • স্লিপ স্যাক বেছে নিন

    আপনার শিশুর শীতকালের জামাগুলির মধ্যে স্লিপ স্যাক থাকা আদর্শ। এটি আরামদায়ক এবং এর ভিতরের অংশ খুবই নরম যা শিশুকে কেবল ঘুম পাড়াতেই সাহায্য করবে ত নয় বরং প্রচণ্ড ঠাণ্ডা থেকে আপনার শিশুকে রক্ষাও করবে।

    • স্ট্রলার আউটফিট

    যদি আপনি আপনার ছোট্ট সোনাকে নিয়ে একটি স্ট্রলারে বাইরে বেরোতে চান তবে এটি সম্পূর্ণ ঢাকা আছে ত সুনিশ্চিত করুন, বিশেষ করে এদের হাত, পা, কান ও মাথা কারণ এই সকল অংশ ঠাণ্ডায় জমে যাওয়ার জন্যে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ। শিশুকে ফুলহাতা জামাসহ কিছু প্যান্ট ও মোজা পরিয়ে রাখুন, তার ওপরে একটি জিপ-আপ সোয়েটশার্ট বা জ্যাকেট পরান, শেষে বাইরে বেরোনোর আগে একটি আরামদায়ক স্নো স্যুট পরান। এগুলি ঠাণ্ডা প্রতিরোধ করার জন্যে প্রয়োজনীয় সুরক্ষা প্রদান করে।

    শিশুকে ঠাণ্ডায় কতক্ষণ বাইরে নিয়ে যাওয়া যায়?

    যেহেতু শিশুদের শরীরে খুব তাড়াতাড়ি তাপমাত্রা কমে যায় তাই শীতকালে খুব বেশি সময় বাইরে না থাকাই ভালো, বিশেষ করে যদি তাপমাত্রা -20 ডিগ্রির নিচে হয় এবং খুব বেশি হাওয়া দেয়। যদি খুব বেশি ঠাণ্ডা না থাকে বা হাওয়া না দেয় তাহলে শিশুকে বাইরে ঘোরানোর জন্যে কোনো ক্ষতি হয় না। যদি আপনার শিশু ছটফট করতে শুরু করে তবে সেদিকে নজর দিন, হতে পারে ওর ঠাণ্ডা লাগতে শুরু হয়েছে।

    রাতের সময়ে শিশুকে জামা পরানো

    রাতের বেলায় আপনার শিশুকে গরম ও আরামে রাখা প্রয়োজনীয় হলেও তাদের খুব বেশি গরম হতে না দেওয়া জরুরি। শিশুর তাপমাত্রা হঠাৎ বেড়ে গিয়ে মৃত্যুর ঘটনা বৃদ্ধি পেটে দেখা যাচ্ছে। এটি কট ডেথ নামেও পরিচিত। রাতে আপনার শিশুর ঘরে রুম হিটিং করার প্রয়োজন নেই, খেয়াল রাখুন ঘরের তাপমাত্রা যেন স্বাভাবিক হয়। ঘরের আদর্শ তাপমাত্রা হল 18 ডিগ্রি সেলসিয়াস, কিন্তু এটি 16-20 ডিগ্রি সেলসিয়াসের মাঝামাঝি থাকতে পারে। ঘরের তাপমাত্রা সুরক্ষিত ও আরামদায়ক বজায় রাখতে একটি থার্মোমিটার ব্যবহার করুন। তাপমাত্রার অতিরিক্ত বেড়ে যাওয়া প্রতিরোধ করতে রেডিয়েটর, হিটার, আগুন বা সরাসরি সূর্যের আলো থেকে আপনার শিশুকে দূরে রাখুন।

    উপসংহার

    শীতকালের শিশু ও প্রাপ্তবয়স্কদের জন্যে কঠিন হতে পারে। সঠিক জামাকাপড় পরালে ও যত্ন নিলে আপনি শিশুর স্বাস্থ্যে হওয়া ক্ষতিকর প্রভাবের ঝুঁকি কমাতে পারেন। আপনার শিশুকে গরম ও আরামে রাখা সুনিশ্চিত করুন যাতে তার জন্যে শীতকাল স্মৃতিময় ও আনন্দের হয়ে ওঠে।

    Baby Socks 0-6 Months - Cute Girls Picot (Pack of 3)

    Up to 20Kgs Weight Capacity | EN Certified

    ₹ 249

    4.4

    (1657)

    894 Users bought

    Is this helpful?

    thumbs_upYes

    thumb_downNo

    Written by

    Parna Chakraborty

    Get baby's diet chart, and growth tips

    Download Mylo today!
    Download Mylo App

    RECENTLY PUBLISHED ARTICLES

    our most recent articles

    Mylo Logo

    Start Exploring

    wavewave
    About Us
    Mylo_logo

    At Mylo, we help young parents raise happy and healthy families with our innovative new-age solutions:

    • Mylo Care: Effective and science-backed personal care and wellness solutions for a joyful you.
    • Mylo Baby: Science-backed, gentle and effective personal care & hygiene range for your little one.
    • Mylo Community: Trusted and empathetic community of 10mn+ parents and experts.