back search

Want to raise a happy & healthy Baby?

  • Get baby's growth & weight tips
  • Join the Mylo Moms community
  • Get baby diet chart
  • Get Mylo App
    ADDED TO CART SUCCESSFULLY GO TO CART
    • Home arrow
    • Pregnancy Journey arrow
    • গর্ভাবস্থার শুরুর দিকে স্তনবৃন্তগুলি কেমন দেখায়? (How do nipples look like in early pregnancy in Bengali) arrow

    In this Article

      গর্ভাবস্থার শুরুর দিকে স্তনবৃন্তগুলি কেমন দেখায়? (How do nipples look like in early pregnancy in Bengali)

      Pregnancy Journey

      গর্ভাবস্থার শুরুর দিকে স্তনবৃন্তগুলি কেমন দেখায়? (How do nipples look like in early pregnancy in Bengali)

      3 November 2023 আপডেট করা হয়েছে

      গর্ভাবস্থার একেবারে শুরুর দিকের লক্ষণগুলির মধ্যে একটি হল স্তনের চেহারায় পরিবর্তন। গর্ভাবস্থা চলাকালীন আপনি নিজের স্তনের চেহারায় বিভিন্ন পরিবর্তন দেখতে পাবেন। সম্পূর্ণ গর্ভাবস্থা জুড়ে আপনার শরীরে হরমোনের মাত্রায় পরিবর্তন আসে। আপনার জীবনের এই সময়ে হওয়া অনেক পরিবর্তনের জন্যে এই হরমোনগুলিই দায়ী। যদিও এই হরমোনগুলি দুধ পান করানোর জন্যে স্তনকে প্রস্তুত করতে সাহায্য করে।

      গর্ভাবস্থায় আপনার স্তন আকারে বড় হয়ে যাবে। মাঝে মাঝে তাতে ব্যথাও হতে পারে। আপনার স্তনবৃন্তগুলির রঙে পরিবর্তন আসতে পারে। এই সমস্ত কিছুই গর্ভাবস্থায় স্বাভাবিক। এবং এর মধ্যে কোনও পরিবর্তনের কারণে যদি আপনার অস্বস্তি হয় তবে জেনে রাখা প্রয়োজন যে কিছু উপায় আছে যার সাহায্যে আপনি নিজেকে শান্ত করে ভাল অনুভব করতে পারেন।

      গর্ভাবস্থার প্রথম ট্রাইমেস্টারে (1 থেকে 12 সপ্তাহ) কোনও-কোনও ক্ষেত্রে আপনার স্তন ফুলে যেতে পারে ও স্পর্শকাতর মনে হতে পারে। তাতে ছুঁচ ফোটার মতো অনুভুতি হতে পারে। আপনার স্তনবৃন্তগুলি স্বাভাবিকের থেকে বেশি বাইরে বেরিয়ে আসতে পারে। গর্ভাবস্থার পরবর্তী তিন মাসে আপনার স্তন দু’টি আকারে ও ওজনে আরও বৃদ্ধি পাবে। বড় সাইজের ব্রা যা বেশি মাত্রায় সাপোর্ট দেয় তা ব্যবহার করলে হয়তো আপনার সুবিধা হবে। গর্ভাবস্থার সময় এগোনোর সাথে সাথে স্তনের স্পর্শকাতর ভাব ও ছুঁচ ফোটার অনুভুতি অনেকটাই কমে যাবে।

      আপনার স্তনের আকার বৃদ্ধি হলে ত্বকের নীচে থাকা শিরাগুলি আরও স্পষ্ট হয়ে ওঠে। স্তনবৃন্ত ও তার চারপাশের অংশ যা অ্যারিওলা নামে পরিচিত, তা আরও বড় ও কালো হয়ে যায়। অ্যারিওলার উপরে আপনি খুব ছোট ছোট উঁচু অংশ লক্ষ্য করতে পারেন। সন্তান জন্ম দেওয়ার পরে এগুলি নিয়ে আর আপনার কোনও চিন্তা থাকবে না। গর্ভাবস্থায় কিছু মহিলাদের স্তনের চারপাশে স্ট্রেচ মার্কস দেখা যায়। গর্ভাবস্থার 16তম থেকে 19তম সপ্তাহের শুরুতে আপনার স্তনবৃন্ত থেকে একটি হলদে তরল বেরোতে দেখতে পারেন যা কলোস্ট্রাম নামে পরিচিত। সহজ ভাষায় বলতে গেলে এর থেকে বোঝা যায় আপনার স্তনগুলি শিশুকে স্তন্যপান করানোর জন্যে নিজেদের তৈরি করছে। শিশুর জন্মের প্রথম কিছু ঝুঁকিপূর্ণ দিনগুলিতে তাঁকে রোগের হাত থেকে রক্ষা করায় এর ভূমিকা থাকার কারণে কলোস্ট্রামকে অনেক ক্ষেত্রেই “প্রি-মিল্ক” বলা হয়ে থাকে।

      আপনার স্তনবৃন্ত আকারে বড় হওয়া বা আরও সংবেদনশীল হয়ে যাওয়া এবং অ্যারিওলার অংশ কালো হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা এই সময়ে থাকে। বাড়ন্ত ভ্রূণের পুষ্টির প্রয়োজনীয়তাগুলি মেটানোর জন্যে আপনার শরীরে রক্তের পরিমাণ গর্ভাবস্থার প্রথম ট্রাইমেস্টার থেকে বাড়তে থাকে। এর ফলে আপনার স্তনের কাছের শিরাগুলি আরো স্পষ্ট, বড় ও নীলচে হয়ে যেতে পারে। এগুলি ফুলে যেতে পারে ও এতে ব্যথা হতে পারে, তবে এই লক্ষণগুলি সাধারণত আপনার শরীর হরমোনের মাত্রায় তারতম্যগুলির সাথে মানিয়ে নেওয়ার সাথে সাথে গর্ভাবস্থার প্রথম কিছু সপ্তাহের মধ্যেই চলে যায়।

      আপনার স্তনের নানা পরিবর্তনগুলির মাঝে আপনাকে যে-কোনও সংক্রমণ বা জটিলতা থেকে বাঁচতে ও ভাল থাকতে কিছু উপায় খুঁজতে হবে। এখানে কিছু পরামর্শ দেওয়া হল যা কাজে লাগতে পারে :

      • যদি আপনার স্তনে ব্যথা বা স্পর্শকাতর ভাব অনুভুত হয় তবে আপনার পিঠে ভাল করে সাপোর্ট দেয় এরকম কোনও ব্রা পরুন। কাঁধের স্ট্র্যাপগুলিতে প্যাড দেওয়া হলে তা সাহায্য করবে। সুতির কাপড়ে তৈরি ব্রা-গুলি আপনার জন্যে বেশি আরামদায়ক হতে পারে।
      • রাত্রে ঘুমোনোর সময়ে একটি স্লিপ ব্রা ব্যবহার করুন। যদিও এগুলি নরম ও হালকা হয় তবুও আপনি ঘুমোনোর সময় এগুলি আপনাকে কিছু সাপোর্ট দেবে।
      • আপনার স্তনবৃন্তের চারপাশের অংশে সাবান ব্যবহার করবেন না। এর ফলে ত্বক শুষ্ক হয়ে যেতে পারে। ওই জায়গাগুলি পরিষ্কার করার জন্যে উষ্ণ গরম জলই যথেষ্ট।
      • আপনার ত্বকের যে-যে জায়গায় স্ট্রেচ হয়েছে যেমন পেট, স্তন অথবা অন্যান্য জায়গায় সেসব জায়গায় যদি আপনি চুলকানি অনুভব করেন তবে খুব বেশি গরম জলে স্নান করা থেকে বিরত থাকুন।
      • স্নান করে বেরিয়ে গা ভাল করে মুছে ত্বক সম্পূর্ণ শুকিয়ে যাওয়ার আগেই ময়েশ্চারাইজার লাগান। যদি আপনি ময়েশ্চারাইজারটিকে ফ্রিজে রেখে দেন তবে দেখবেন এটি আরও আরামদায়ক অনুভুতি দেবে।
      • শুষ্ক সাবান, অ্যালকোহল-যুক্ত ত্বকের প্রসাধনী ও অতিরিক্ত ক্লোরিন-যুক্ত জল ব্যবহার না করাই ভাল। এগুলি ত্বকের শুষ্কতা বাড়িয়ে দিতে পারে।
      • যদি খুব বেশি চুলকানি হয় এবং কিছুতেই এটি না কমে তবে একজন ডাক্তার দেখিয়ে নেওয়া উচিত।
      • লিক হওয়া আটকাতে আপনার ব্রায়ের ভিতর ব্রেস্ট প্যাড ব্যবহার করুন। পরিষ্কার করে পুনরায় ব্যবহারযোগ্য ব্রেস্ট প্যাড বাজারে পাওয়া যায়।

      মনে রাখবেন গর্ভাবস্থার শুরুতে আপনার স্তনবৃন্ত কেমন দেখাচ্ছে ও আপনার দুধ তৈরি হওয়ার প্রকারের মধ্যে কোনও সম্পর্ক নেই। গর্ভাবস্থার পরে কিছু মহিলাদের স্তন আগের আকার ও আকৃতিতে ফিরে যায়, আবার কিছু মহিলাদের স্তন একইরকম থেকে যায়।

      Is this helpful?

      thumbs_upYes

      thumb_downNo

      Written by

      Satarupa Dey

      Get baby's diet chart, and growth tips

      Download Mylo today!
      Download Mylo App

      RECENTLY PUBLISHED ARTICLES

      our most recent articles

      Start Exploring

      About Us
      Mylo_logo

      At Mylo, we help young parents raise happy and healthy families with our innovative new-age solutions:

      • Mylo Care: Effective and science-backed personal care and wellness solutions for a joyful you.
      • Mylo Baby: Science-backed, gentle and effective personal care & hygiene range for your little one.
      • Mylo Community: Trusted and empathetic community of 10mn+ parents and experts.

      Open in app